Ad Space 100*120
Ad Space 100*120

ঘূর্ণিঝড় সিত্রাং : লক্ষ্মীপুরে ৩০ টি ইউপিতে ৮০০ ঘর সম্পর্ণ বির্ধ্বস্ত, আংশিক ৪৬৫০০


প্রকাশের সময় : ১ বছর আগে
ঘূর্ণিঝড় সিত্রাং : লক্ষ্মীপুরে ৩০ টি ইউপিতে ৮০০ ঘর সম্পর্ণ বির্ধ্বস্ত, আংশিক ৪৬৫০০

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি: ঘূর্ণিঝড় সিত্রাং এর প্রভাবে লক্ষ্মীপুর জেলায় ৩০ টি ইউনিয়নে ১৭ হাজার ৪০০ ঘর আংশিক ও ৮০০ শত সম্পূর্ণ বির্ধ্বস্ত হয়। এ সময় ঝড়ের কবলে পড়ে এবং গাছ পড়ে জেলায় ০৭ জন লোক আহত হয়। জেলায় মোট ৪৬ হাজার ৫ শত লোক দূর্যোগে ক্ষতিগন্থ হয়েছে।
দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রনালয়ের মহাপরিচালক বরাবর ক্ষতিগ্রন্থ সংক্রান্ত প্রাথমিক বিবরণী লক্ষ্মীপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয় থেকে প্রেরণ করেছে। এতে জেলায় বাড়ি ঘর ও দোকান পাঠ ক্ষতিগ্রন্থদের জন্য ১০০০ হাজার বান্ডিল ঢেউটিন সাথে নগদ সহায়তা চাওয়া হয়েছে সংশিষ্ট মন্ত্রনালয়ের কাছে।
জানা যায়, লক্ষ্মীপুর জেলার মধ্যে সব চেয়ে বেশী ক্ষতিগ্রন্থ হয়েছে রামগতি ও কমলনগর উপজেলায় এসব উপজেলা সমূহে বাড়ি ঘর, দোকান পাঠ, রাস্তা ঘাট বেশী ক্ষতিগ্রন্থ হয়েছে। জোয়ারের পানিতে তলিয়ে গেছে গাছের ঘেরসহ ফসলি জমি, শাকসবজি সহ বিভিন্ন মালামাল।
এ ছাড়া গাছ থেকে বসতঘর ও বিদুতের লাইন ছিড়ে যাওয়ায় যোগাযোগ ব্যবস্থা কিছু কিছু এলাকায় বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। তবে সংকট নিরসনে কাজ চলে বলে জানান সংশ্লিষ্ট প্রশাসন।
জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক ড, মো: জাকির হোসেন জানান, জেলার কমলনগর উপজেলায় প্রায় ১০০ হেক্টর আমন ধান পানি ডুবে ক্ষতিগ্রন্থ হয়েছে। কৃষি কর্মকর্তাদের কৃষকদের পাশে থেকে প্রয়োজনীয় পরামর্শ দেওয়ার জন্য বলা হয়েছে। এ ছাড়া সদরসহ জেলার সব উপজেলায় শাকসবজি, ফল, ফসলসহ অন্যান্য মালামাল ক্ষয়—ক্ষতি হয়েছে।
লক্ষ্মীপুর পল্লী বিদ্যুত সমিতির জেনারেল ম্যানেজার মো. জাকির হোসেন জানান, বিদ্যুত সরবরাহ স্বাভাবিক করতে কাজ করছে কমীর্রা সব এলাকায় স্বাভাবিক করতে কিছুটা সময় লাগবে। পুরো জেলায় প্রায় ১২০টি টিম কাজ করছে বলে জানান তিনি।
জেলা ত্রাণ ও পুনবার্সন কর্মকর্তা ইউনুছ মিয়া জানান, জেলা প্রশাসক মহোদয়ের মাধ্যমে ক্ষতিগ্রন্থ সংক্রান্ত প্রাথমিক বিবরণী মন্ত্রনালয়ে প্রেরণ করা হয়েছে।
জেলা প্রশাসক মো. আনোয়ার হোছাইন আকন্দ বলেন, সিত্রাং এর আঘাতে জেলায় ঘর—বাড়ি, গাছপালা ও ফসলী জমির ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্থদের তালিকা করে দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করা হয়েছে। মন্ত্রনালয়ের বরাদ্দ সাপেক্ষে ক্ষতিগ্রন্থদের তালিকা করে সহযোগিতা করা হবে।