Ad Space 100*120
Ad Space 100*120

চার দাবিতে লক্ষ্মীপুরে বেসরকারি মাধ্যমিক শিক্ষকদের সমাবেশ


প্রকাশের সময় : ৯ মাস আগে
চার দাবিতে লক্ষ্মীপুরে বেসরকারি মাধ্যমিক শিক্ষকদের সমাবেশ

 

সারোয়ার হোসেন, সংবাদদাতা:এমপিওভূক্ত মাধ্যমিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান জাতীয়করণ ঘোষণাসহ চূড়ান্ত বাস্তবায়নের আগ পর্যন্ত বদলী ব্যবস্থা চালু, উৎসব ভাতা ও বাড়ি ভাড়া বৈষম্য দূরীকরণ এবং জাতীয়করণে প্রস্তাবিত কমিটিতে বিটিএ নেতাদের অন্তর্ভূক্তির দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি (বিটিএ)। ১৮ আগস্ট (শুক্রবার) সকালে লক্ষ্মীপুর টাউন হলে লক্ষ্মীপুর জেলা মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির আয়োজনে অনুষ্ঠিত এক সমাবেশে এসব দাবি করা হয়।
সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিটিএ’র সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ শেখ কাওছার আহমেদ। এছাড়াও বক্তব্য রাখেন সংগঠনটির সিনিয়র সহ সভাপতি অধ্যক্ষ মো: আবুল কাশেম, সাংগঠনিক সম্পাদক ইকবাল হোসেন, সদস্য শিমুল কান্তি মহাজন, লক্ষ্মীপুর জেলা প্রতিনিধি ও রামগতি উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষক কর্মচারী সমিতির সভাপতি তুহিনা আক্তার, কমলনগর প্রধান শিক্ষক পরিষদের সভাপতি মিজানুর রহমান মানিক, সদর উপজেলা সাধারণ সম্পাদক রুহুল আমিন, রামগঞ্জ সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম, রায়পুর সভাপতি আলমগীর হোসেনসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ। জেলা মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি আলহাজ মো: নুরুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ সমাবেশে লক্ষ্মীপুরের পাঁচ উপজেলার সহ¯্রাধিক শিক্ষক—কর্মচারী অংশ নেন।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে শেখ কাওছার আহমেদ বলেন, বিটিএ’র শিক্ষক আন্দোলনের দূর্গ হবে লক্ষ্মীপুর জেলা। আমরা দাবি আদায়ে রাজপথেই আছি। জাতীয়করণ ঘোষনা ও বাস্তবায়ন ছাড়া এ পথচলা বন্ধ হবে না। জাতীয় প্রেসক্লাবে ২৩দিনের আন্দোলনে লাখো শিক্ষকের উপস্থিতি আমাদের ন্যায্য দাবিকেই বাস্তব রুপ দেখাবে। মামনীয় প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর ও শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী মহোদয়ের সাথে আলোচনা ফলপ্রসূ হওয়ায় আমরা আন্দোলন সাময়িক স্থগিত করেছি মাত্র। দাবি আদায় না হলে আবার রাজপথে শিক্ষকরা নামবে। তিনি আরো বলেন, ১হাজার টাকায় বাড়িভাড়া কোথাও পাওয়া যায় না, ৫শ টাকায় ডাক্তারের ফিও হয়না। সিকিভাগ বোনাসে উৎসব কাটেনা। শত শত মাইল দুরে এনটিআরসিএর নিয়োগ পাওয়া শিক্ষকদের বদলী চাই। আমরা এসব বৈষম্য দূরীকরণে জাতীয়করণ চাই।
প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, আগামী নির্বাচনেই আগেই প্রধানমন্ত্রী বেসরকারি শিক্ষকদের প্রত্যাশা ও প্রাপ্তির সমন্বয় ঘটাবেন এমন বিশ^াস আমাদের আছে। শিক্ষামন্ত্রী ডা: দিপু মনি’র উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ব্যর্থ মন্ত্রী—এমপিদের তালিকায় আপনার নাম থাকতে পারে। আপনী ব্যর্থ, শিক্ষকদের জন্য আপনি কিছুই করতে পারেননি। আমাদের দাবি এখন কোন মন্ত্রীর কাছে নয়। আমাদের দাবি প্রধানমন্ত্রীর কাছে।