Ad Space 100*120
Ad Space 100*120

পটুয়াখালীর বাউফলে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে সন্রাসী হামলা, ৫নারী আহত


প্রকাশের সময় : ১ বছর আগে
পটুয়াখালীর বাউফলে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে সন্রাসী হামলা, ৫নারী আহত

নিজস্ব প্রতিনিধি : পটুয়াখালীর বাউফলে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে অতর্কিত সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটেছে।

রবিবার সকাল সাড়ে ১০টায় উপজেলার কেশবপুর ইউনিয়নের মল্লিকডুবা গ্রামে এ হামলার এঘটনাটি ঘটে।
এঘটনায় একই পরিবারের ৫ নারী আহত হয়েছে। আহতরা হলেন,কহিনুর বেগম (৪৫),ফজিলাত বেগম(৪২), আয়শা আক্তার রুনু(৩৫),পরি বেগম(৩৫),মুক্তা আক্তার(৩০)। আহতদের উদ্ধার করে বাউফল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

এদিকে অভিযুক্তরা হলেন, একই গ্রামের আজহার উদ্দিন এর ছেলে, ভূমি দস্যু ও স্থানীয় সন্ত্রাসী আমিনুল ইসলাম, মিজান সাকু, আব্দুর রশিদ এর ছেলে রিপন ও রোজেনসহ দেশীয় অস্ত্রধারী অজ্ঞাত ১০-১২জন। তাদের বিরুদ্ধে বাউফল থানায় লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মল্লিকডুবা গ্রামের আব্দুস সাত্তার হাওলাদার গংদের সাথে একই গ্রামের ভূমি দস্যু আমিনুল ইসলাম হাওলাদার গংদের জমিজমা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। ঘটনার দিন সকালে আমিনুল ইসলাম গং হঠাৎ করে ১০/১২ জন লোক নিয়ে ওই বিরোধকৃত জমি দখল করতে যায়।

এসময় আব্দুস সাত্তার হাওলাদার গংদের কোন পুরুষ লোক বাড়িতে না থাকায় বাড়ির মহিলারা জমি দখল না করার জন্য বললে আমিনুল ইসলাম তার লোকজন নিয়ে মহিলাদের উপর অতর্কিত হামলা চালায়। হামলায় আবুল কাশেম সিকদারের স্ত্রী কহিনুর বেগম (৪৫), বিল্লাল খানের স্ত্রী ফজিলাত বেগম লাভলী (৪২) নুরুল ইসলামের স্ত্রী আয়েশা আক্তার রুনু(৩৫) , নিজাম সিকদারের স্ত্রী পরি বেগম(৩৫), শামীম হাওলাদারের স্ত্রী মুক্তা আক্তার(৩০) আহত হয়।

এসময় তাদের এলোপাতাড়ি পিটিয়ে রক্তাক্ত করা সহ নারীদের শ্লীলতাহানি করার অভিযোগও করেন ভুক্তভোগীরা।

পরে স্থানীয়রা তাদেরকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে বাউফল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

এদের মধ্যে ফজিলাত বেগম লাভলী ও মুক্তা আক্তারের অবস্থা আশংকা জনক বলে জানিয়েছেন কর্তব্যরত চিকিৎসক। বর্তমানে আহত সবাই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

তবে অভিযুক্ত সবাই পলাতক থাকায় তাদের বক্তব্য নেওয়া যায়নি।

এবিষয়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান বলেন , একাধিক বার আমি সালিশ বৈঠক করেছি। আমিনুল ইসলামরা সালিশ মানেনা। এছাড়া তাদের বিরুদ্ধে অন্য আরও ৪-৫ টা পরিবারের জমি জোরপূর্বক দখল কার অভিযোগও পেয়েছি।

এবিষয়ে বাউফল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আল মামুন বলেন, এবিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি, অভিযোগ টি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।