Ad Space 100*120
Ad Space 100*120

রায়পুরে আখের ফলন ভালো হয়েছে


প্রকাশের সময় : ৬ মাস আগে
রায়পুরে আখের ফলন ভালো হয়েছে

প্রতিনিধি : লক্ষ্মীপুরের রায়পুর উপজেলার উপকূলীয় অঞ্চল চরমোহনা গ্রামে আখ চাষ করে সাবলম্বী হয়েছেন অনেক কৃষক। এই উপজেলায় বর্তমানে প্রায় ৬০ হেক্টর জমিতে আখ চাষ হচ্ছে। বছরে উৎপাদন ছাড়িয়েছে ১ হাজার ৪৬০ মেট্রিক টন।কৃষকরা দিন দিন আখ চাষে আগ্রহী হচ্ছেন। তবে আখ চাষে পরিশ্রম এবং বিনিয়োগ অন্যান্য ফসলের চেয়ে বেশি। উন্নত জাত প্রবর্তন ও পোকামাকড় থেকে রক্ষার জন্য বাংলাদেশ সুগার ক্রপ গবেষণা ইনস্টিটিউট থেকে বিভিন্ন প্রকল্পের মাধ্যমে আখ চাষিদের উদ্বুদ্ধ করা হয়। চলতি অর্থবছরে (২০২৩-২৪) উপজেলায় ১ হাজার ৪৬০ মেট্রিক টন আখ উৎপাদিত হয়। রায়পুরের চরমোহনা, চরআবাবিল, ঝাউডুগি, হায়দরগঞ্জ ও ক্যাম্পেরহাট এলাকায় বেশি আখ চাষ হয়।

সাধারণত ফেব্রুয়ারি মাসেই আখ রোপণ করা হয়। ফলন দিতে প্রায় ৭ মাস লাগে অর্থাৎ আগষ্ট মাসে হয়। তবে আখ খেতের ফাঁকে বিভিন্ন সবজির চাষ করা হয়। তাই আখ বড় হতে হতে বছরজুড়ে অন্যান্য ফসল পাওয়া যায়।

চরআবাবিল গ্রামের যুবক জসিম বলেন, তিনি ২০ শতাংশ জমিতে আখ চাষ করেছেন। পাশাপাশি তিনি ক্ষিরা ও টমেটোর চাষও করেন। তাকে দেখে আরও ৫-৬ জন যুবক আখ চাষ শুরু করেছেন।

চরমোহনা গ্রামের সাবিদ আলী ২০২০ সালে আখ চাষ শুরু করেন। এখন তিনি ৩০ শতক জমিতে আখ চাষ করেন। আখের চাষ করেই সেমি পাকা বাড়ি তুলেছেন। ছেলে ও মেয়েদের বিয়ে দিয়েছেন।

উপজেলা কৃষি অফিসের উপসহকারী উদ্ভিদ সংরক্ষণ কর্মকর্তা এটিএম খোরশেদ বলেন, রায়পুর উপজেলার কৃষকরা দিন দিন আখ চাষে আগ্রহী হচ্ছেন। আখ চাষে পরিশ্রম ও বিনিয়োগ অন্যান্য ফসল চেয়ে বেশি।