Ad Space 100*120
Ad Space 100*120

রায়পুরে নির্দেশনা উপেক্ষা করে মেলা, সংঘর্ষ, আহত-১৫


প্রকাশের সময় : ১ মাস আগে
রায়পুরে নির্দেশনা উপেক্ষা করে মেলা, সংঘর্ষ, আহত-১৫

প্রতিনিধি: লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে অনুমতি ছাড়া আয়োজন করা ওঠা আল কাদরী ও সৃজলী (রহঃ) দরবার শরীফের উদ্যোগে আয়োজন করা তিন দিন ব্যাপী মেলা বন্ধ করে দিয়েছিলেন প্রশাসন। কিন্তু বুধবার সকালে (১৭ জানুয়ারি) সেই নির্দেশনা উপেক্ষা করে মেলা চালু রাখা হয় ।
এতে স্থানীয় লোকদের মধ্যে কয়েকজন দোকানির সংষর্ষ হলে ১০ জন আহত হন। এ ঘটনার পর হাজিমারা পুলিশ ৯ দোকানিকে আটক করে রায়পুর থানায় নিয়ে আসা হয়।তবে আটককৃতদের নাম ও পরিচয় জানা যায়নি। তাদের বিরুদ্ধে ৫৪ ধারায় মামলার প্রক্রিয়া চলছে বলে জানান হাজিমারা ফাড়ির পরিদর্শক আবুল কালাম আজাদ।
জানা গেছে, ৮/১০ জনের স্থানীয় একটি প্রভাবশালী মহল কোনও অনুমতি ছাড়াই মঙ্গলবার থেকে তিনদিন ব্যাপী চরলক্ষি আল কাদরী ও সৃজলী (রহঃ) দরবার শরীফের উদ্যোগে দুদিন ব্যাপী মাহফিলের’ নামে এ মেলার আয়োজন করে। এ নিয়ে যে কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটার আশংকা করেন এলাকাবাসী। পরে জেলা প্রশাসক সুরাইয়া জাহানের নির্দেশে উপজেলা প্রশাসন মেলার সব কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়।

মনির মোল্লা ও মোঃ শরিফ হোসেনসহ কয়েকজন অভিযোগ করেন, ‘ রায়পুরে দক্ষিন চরবংশী ইউপির চরলক্ষি গ্রামের খলিফার হাটে আল কাদরী ও সৃজলী (রহঃ) দরবার শরীফের উদ্যোগে দুইদিন ব্যাপী ইসালে সওয়াবের মাহফিল কে কেন্দ্র করে স্থানীয় ফারুক কাড়ী, মফিজ কাড়ি, জয়নাল উদ্দিন মোল্লাসহ সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আবদুর রশীদ মোল্লা এই মেলাটি চালুর জন্য সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেন। জুয়ার আসরও হয়।
তারা আরও বলেন, ‘এ মেলার কারণে স্থানীয় কয়েকশ ক্ষুদ্র ও মাঝারি প্রায় ৮’শ ব্যবসায়ী ব্যাবসা শুরু করে দিয়েছেন। এ মেলায় কাপড় ও ইলেক্ট্রনিক্স পণ্যসহ বিভিন্ন রকমের দোকানপাট বসানো হয়েছে।।’এসব ব্যাবসায়ীর কাছ থেকে ৩ হাজার থেকে ২০ হাজার টাকা করে উত্তোলন করা হয়েছে। এই মেলাটি চন্দ্রগন্জ এলাকা থেকে ভেঙ্গে এখানে আসছে।
মাহফিলের আয়োজক মাওলানা খায়রুল বাশার (গদিনিশি) ও কারি আবদুল বাতেন বলেন, ৮০ বছর ধরে এখনে দুইদিন ব্যাপী (মঙ্গলবার ও বুধবার) মাহফিল হয়ে আসছে। বৃহস্পতিবার আখেরী মোনাজাত হবে। এ উপলক্ষে আমরা শুধুই কয়েকটি খাবার হোটেল বসার জন্য অনুমতি দিয়েছি। জুয়া খেলা বা অন্য প্রসাধনিসহ ব্যাবসা প্রতিষ্ঠান বসার অনুমতি দেইনি। আমাদের নামে অপপ্রচার করছে একটি মহল।।
রায়পুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) নাজমা বিনতে আমিন বলেন, ‘অনুমতি ছাড়া মেলা চালু করায় জেলা প্রশাসকের নির্দেশে তা বন্ধ করে দেওয়া হয়। কিন্তু নির্দেশ অমান্য করে মেলা চালু রাখে কয়েকজন দোকানি। এতে মারামারির ঘটনা ঘটে। আটক নয় জনের বিরুদ্ধি আইনগত ব্যাবস্থা নেয়া হচ্ছে।