Ad Space 100*120
Ad Space 100*120

রায়পুরে প্রবাসীর ঘরে হামলা-ভাঙচুর, আটক ১জনকে গনপিটুনি


প্রকাশের সময় : ১ বছর আগে
রায়পুরে প্রবাসীর ঘরে হামলা-ভাঙচুর, আটক ১জনকে গনপিটুনি

রায়পুর (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি:
লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে প্রবাসীর ঘরে দফায় দফায় হামলা চালিয়ে হামলা ও ভাঙচুর চালানো হয়েছে। এসময় রৌশন আরা নামে এক বৃদ্ধাসহ ২ জনকে পিটিয়ে আহত করা হয়। এসময় নগদ টাকাসহ ৫ লাখ টাকার স্বর্ণালংকার লুটে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার (৬ সেপ্টেম্বর) ভোর রাতে উপজেলার বামনী ইউনিয়নের কলাকোপা গ্রামে মালেয়শিয়া প্রবাসী নুর হোসেন পরানের বসতঘরে একদল অচেনা লোক এ ঘটনা ঘটায়। এঘটনাকে ডাকাতি বলে অভিযোগ করেছেন ভূক্তভোগীরা।
এসময় আহতদের চিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন একজনকে গনপিটুনি দিয়ে আটকে রাখলর আটক ব্যক্তিকে ছাড়িয়ে নিতে এসে দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্রে সজ্জিত ১৫-২০ জনের একদল লোক ভোরে ফের হামলা চালিয়ে প্রবাসি পরানের মা রৌশন আক্তার ও বোন মোতাহেরা আহত করে।
পুলিশ ও ভূক্তভোগীরা জানায়, ঘটনার সময় ৮-৯ জনের একদল ‘ডাকাত’ পরানদের ঘরে ঢুকে পড়ে। এসময় রৌশন আক্তার ও মোতাহেরার গলা-কান থেকে স্বর্ণের চেইন-দুল ও আংটি ছিনিয়ে নেয়। এসময় বাধা দিলে রৌশনকে কাঠ দিয়ে পিটিয়ে গুরুত্বর আহত করে। তাদের চিৎকারে আশপাশের লোকজন জড়ো হয়ে একজনকে আটক করে। পরে আটক ব্যক্তিকে ছাড়িয়ে নিতে দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্রে সজ্জিত ২০-২৫ জনের একদল লোক ফের এসে হামলা চালায়। হামলাকারীরা ঘরে থাকা নগদ দুই লাখ টাকা, দুটি পাসপোর্টও নিয়ে যায়। আটক ব্যক্তিকে পুলিশের কাছে সৌপর্দ করা হয়েছে। তবে তার নাম-পরিচয় জানা যায়নি।
স্থানীয়রা জানায়, প্রতিবেশি আনিসুর রহমান নসুদের সঙ্গে প্রবাসি পরানদের ১৮ শতাংশ জমি নিয়ে বিরোধ। এ ঘটনায় লক্ষ্মীপুর আদালতে মামলাও চলমান। এর জের ধরেই আনিসুর রহমান ভাড়াটে লোকজন এনে রাতের অন্ধকারে পরানদের ঘরে হামলা করিয়েছে। হামলাকারীদের মধ্যে আটক ব্যক্তি ঘটনাটি স্বীকার করেছে।
নুর হোসেন পরান বলেন, জমি নিয়ে বিরোধের ঘটনায় উভয়পক্ষের আদালতে মামলা চলমান। পরিকল্পিতভাবে আনিসুর রহমান আমাদের ঘরে হামলা চালিয়েছে। এটি ডাকাতি। আমার দুই ভাগিনার পাসপোর্ট নিয়ে গেছে ডাকাতরা। আনিসুর রহমানের নির্দেশে ডাকাতি করতে এসেছে বলে আটক ব্যক্তি জানায়। এ ঘটনায় আমরা সুষ্ঠু বিচার চাই।
অভিযোগ অস্বীকার করে আনিসুর রহমান নসু বলেন, আমার বাবার কেনা ১৮ শতাংশ জমি পরান ও তার বোনেরা দখল করেছে। এনিয়ে আদালতে মামলা চলছে। হামলার বিষয়ে আমি কিছু জানি না। যারা হামলা করেছে তাদেরকেও আমি চিনি না। তারা নিজেরাই পরিকল্পিতভাবে আমাকে ফাঁসানোর জন্য এসব ছড়িয়েছে।
রায়পুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শিপন বড়ুয়া বলেন, জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে হামলা ঘটনা ঘটেছে। এটি ডাকাতি নয়। ঘটনাস্থল গিয়ে পুলিশ উভয় পক্ষের সঙ্গে কথা বলেছে। এ ঘটনায় স্থানীয়রা একজনকে আটক করে আমাদের কাছে সৌপর্দ করেছে। ঘটনাটি তদন্তপূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।