Ad Space 100*120
Ad Space 100*120

রায়পুরে বেঙ্গল সু শ্রমিকদের বিক্ষোভ- সড়ক অবরোধ


প্রকাশের সময় : ৩ সপ্তাহ আগে
রায়পুরে বেঙ্গল সু শ্রমিকদের বিক্ষোভ- সড়ক অবরোধ

প্রতিনিধি : বকেয়া বেতন ও ঈদ বোনাস পরিশোধের দাবিতে শনিবার সকালে বিক্ষোভ করেছে রায়পুরের বেঙ্গল সু ইন্ড্রাষ্ট্রিজ লি:’র শ্রমিকরা। কর্তৃপক্ষ দাবি না মানায় বিক্ষোভ প্রর্দশন করে রায়পুর-লক্ষ্মীপুর আঞ্চলিক মহাসড়ক দুই ঘন্টা অবরোধ করে রাখে তারা। এ সময় রোববার (৩১ মার্চ) দুপুরের মধ্যে বেতন ও বোনাস পরিশোধের আশ্বাস বাস্তবায়ন না হলে আবারও রাস্তায় নামার ঘোষণা দিয়ে অবরোধ ছেড়ে দেয় তারা।
খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন ইউএনও মোঃ ইমরান খান , সহকারী পুলিশ সুপার (সার্কেল) মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল শেখ শাদি , রায়পুর থানার ওসি ইয়াসিন ফারুখ মজুমদার ও ইউপি চেয়ারম্যান এ্যাড. ইউসুফ জালাল কিসমত।
উল্লেখ্য-২০১৯ সালের ১১ মে একই দাবিতে বিক্ষোভ ও সড়ক অবরোধ করেছিলো এই আন্দোলনরত শ্রমিকরা।। পরে বেতন-বোনাস দিয়ে শ্রমিকদের সাথে মিমাংসা করা হয়েছে
আন্দোলনরত শ্রমিকরা জানায়, কারখানাটিতে ১৯শ’ ৫০ জন শ্রমিক কর্মরত। তাদের ২-৬ মাসের বেতন বাকি রয়েছে। অধিক সময় ধরে তারা ঈদ বোনাসের পুরোটা থেকেও বঞ্চিত করা হচ্ছে তাদের। বেতন ও ঈদ বোনাস পরিশোধ না করেই ৬ দিনের ঈদ ছুটি ঘোষণা করে কর্তৃপক্ষ। এমন অবস্থায় ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে শ্রমিকরা। তারা কারখানার অভ্যন্তরে বিক্ষোভ প্রদর্শণ করে দাবি দাওয়া জানাতে থাকে।
জেনারেল ম্যানেজার তাদের কোনো সদুত্তর দিতে না পারায় তারা রায়পুর-লক্ষ্মীপুর আঞ্চলিক সড়ক অবরোধ করে রাখে। প্রায় দুই ঘন্টাব্যাপী এ অবরোধের সড়কের দু’পার্শ্বে শত শত যানবাহন আটকা পড়ে ভয়াবহ জানযটের সৃষ্টি করে।
বেঙ্গল স্যু ইন্ডাষ্ট্রিজ লি: এর জেনারেল ম্যানেজার বিপ্লব পাল বলেন, ব্যাংকিং সমস্যার কারণে রপ্তানি বিল উত্তোলন করা যায়নি। এ কারণে শ্রমিকদের সকল পাওনাদি পরিশোধ করা সম্ভব হয়নি। রোববার বিকালের মধ্যে তাদের পাওনার ১৫% পরিশোধ করা হবে। ঈদের পর মালিকপক্ষ আসলে এবং ব্যাংকিং চালু হলে সকলের দাবি-দাওয়া পূরণ করে দেওয়া হবে।
রায়পুর থানার ওসি ইয়াসিন ফারুক মজুমদার বলেন, ঘটনাস্থলে গিয়ে শ্রমিক-কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলাপ করে সড়ক থেকে অবরোধ প্রত্যাহার করানো হয়েছে। রোববার ১২টার মধ্যে শ্রমিকদের প্রাপ্যের একটি অংশ পরিশোধের বিষয়ে মালিকপক্ষ আশ্বাস দিয়েছেন। শ্রমিকদের আন্দোলন শান্তিপূর্ণ হওয়ায় সেখানে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।