Ad Space 100*120
Ad Space 100*120

লক্ষ্মীপুরে জোড়া খুনের প্রধান আসামী গ্রেফতার ও অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারের দাবী


প্রকাশের সময় : ১ বছর আগে
লক্ষ্মীপুরে জোড়া খুনের প্রধান আসামী গ্রেফতার ও অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারের দাবী

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি: লক্ষ্মীপুর জেলা যুবলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আবদুল্লাহ আল নোমান ও জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক রাকিব ইমাম কে হত্যার ঘটনায় দায়েরকৃত মামলার প্রধান আসামী সাবেক বশিকপুর ইউপি চেয়ারম্যান ও আওয়ামীলীগ নেতা আবুল কাসেম জেহাদী কে গ্রেফতার এবং তার সহযোগীদের ব্যবহার করা অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারের দাবীতে ২৫ মে (বৃহস্পতিবার) বিকেলে এলাকায় গণমিছিলের আয়োজন করে স্থানীয়রা। এতে বিভিন্ন শ্রেণী ও পেশার মানুষ অংশ নেয়।
মিছিল বশিকপুর বাজার থেকে শুরু হয়ে পোদ্দার বাজার, রশিদপুর, বালাশপুর, বিরাহিমপুরসহ বিভিন্ন এলাকায় প্রদক্ষিণ শেষে বিরাহিমপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রাঙ্গণে প্রতিবাদ সমাবেশে এসে মিলিত হয়। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আমির হোসেন, সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, ইউপি চেয়ারম্যান ও নিহত নোমানের বড় ভাই মাহফুজুর রহমান, নিহত রাকিব ইমামের ভাই মো: রুবেল প্রমুখ।
সভায় বক্তারা বলেন জোড়া খুনের ১ মাস পার হয়ে গেলেও মামলার প্রধান আসামী আবুল কাসেম জেহাদী ও অপর আসামী বাবলু, শরীপ, কালুকে এখনো গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। এছাড়া কাছে অস্ত্র এখনো উদ্ধার করা হয়নি। অবিলম্বে অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার ও মামলার বাকী আসামীদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করেন তারা।
প্রসঙ্গত, ২৫ এপ্রিল রাতে সদর উপজেলার বশিকপুর ইউনিয়নের পোদ্দার বাজার এলাকায় যুবলীগ নেতা নোমান ও ছাত্রলীগ নেতা রাকিবকে গুলি করে হত্যা করা হয়। এসময় তাদের ব্যবহৃত মোটরসাইকেল ও মোবাইল নিয়ে যায় দূর্বৃত্তরা। গুলির শব্দ শুনে ঘটনাস্থল গিয়ে স্থানীয় লোকজন গুলিবিদ্ধ অবস্থায় তাদেরকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে নেয়ার পর চিকিৎসকরা নোমানকে মৃত ঘোষনা করেন। ছাত্রলীগ নেতা রাকিবকে সংকটাপন্ন অবস্থায় ঢাকায় নেয়ার পথে মারা যান তিনিও। ২৬ এপ্রিল রাত ১ টার দিকে নিহত নোমানের বড় ভাই ও বশিকপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাহফুজুর রহমান বাদী হয়ে ৩৩ জনের বিরুদ্ধে চন্দ্রগঞ্জ থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। এতে চন্দ্রগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের সহ—সভাপতি আবুল কাশেম জিহাদীকে প্রধান করে ১৮ জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাত ১৫ জনকে আসামি করা হয়। মামলার পর থেকে র‍্যাব ও পুলিশ অভিযান চালিয়ে প্রায় ১৮ জনে গ্রেপ্তার করে ।