Ad Space 100*120
Ad Space 100*120

লক্ষ্মীপুরে জোড়া খুুনের ঘটনায় অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার


প্রকাশের সময় : ১০ মাস আগে
লক্ষ্মীপুরে জোড়া খুুনের ঘটনায় অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি : লক্ষ্মীপুরের বশিকপুরের জোড়া খুনের ঘটনার সাথে জড়িত মামলার ১৪ নং এজাহারভুক্ত আসামি আজিজুর রহমান ছোট বাবলু ও এজাহারভুক্ত অপর আসামী মশিউর রহমান নিশানের কাছ থেকে পুলিশ গত দুই দিনে দুইটি বন্দুক ও পাঁচ রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার করে। লক্ষ্মীপুর জেলার পুলিশ সুপার মো: মাহফুজ্জামান আশরাফ আজ শনিবার দুপুরে এক প্রেস ব্রিফিং এ সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান। পুলিশ সুপার বলেন আজিজুর রহমান ওরফে ছোট বাবলুর তথ্যমতে আমরা তাকে তার বাড়িতে নিয়ে যাই। তার কলাবাগান থেকে গতকাল রাত ১২টার দিকে দুই নলা একটি বন্দুক ও চারটি কার্তুজ উদ্ধার করা হয়। এছাড়া অপর আসামী মশিউর রহমান নিশানের বশিকপুর বাড়ি থেকে একনলা একটি বন্দুক ও একটি কার্তুজ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় দত্তপাড়া তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ বেলায়েত হোসেন বাদী হয়ে থানায় অস্ত্র আইনে তাদের বিরুদ্ধে পৃথক দুইটি মামলা দায়ের করেন।
সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে পুলিশ সুপার আরোও বলেন, আমরা অস্ত্র উদ্ধার অভিযানে নেমেছি।লক্ষ্মীপুরে যেসব অবৈধ অস্ত্র রয়েছে তা উদ্ধার হবে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সকল সংস্থা আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করছে। সাবেক যুবলীগ নেতা নোমান ও সাবেক ছাত্রলীগ নেতা রাকিবের হত্যার ঘটনায় আমরা অনেক তথ্য পেয়েছি,মামলার তদন্ত স্বার্থে অনেক কিছু বলা যাচ্ছে না। মামলার প্রধান আসামি আবুল কাশেম জিহাদীকে গ্রেপ্তারের জন্য কাজ করছি।

লক্ষ্মীপুরে জোড়া খুুনের ঘটনায় অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি : লক্ষ্মীপুরের বশিকপুরের জোড়া খুনের ঘটনার সাথে জড়িত মামলার ১৪ নং এজাহারভুক্ত আসামি আজিজুর রহমান ছোট বাবলু ও এজাহারভুক্ত অপর আসামী মশিউর রহমান নিশানের কাছ থেকে পুলিশ গত দুই দিনে দুইটি বন্দুক ও পাঁচ রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার করে। লক্ষ্মীপুর জেলার পুলিশ সুপার মো: মাহফুজ্জামান আশরাফ আজ শনিবার দুপুরে এক প্রেস ব্রিফিং এ সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান। পুলিশ সুপার বলেন আজিজুর রহমান ওরফে ছোট বাবলুর তথ্যমতে আমরা তাকে তার বাড়িতে নিয়ে যাই। তার কলাবাগান থেকে গতকাল রাত ১২টার দিকে দুই নলা একটি বন্দুক ও চারটি কার্তুজ উদ্ধার করা হয়। এছাড়া অপর আসামী মশিউর রহমান নিশানের বশিকপুর বাড়ি থেকে একনলা একটি বন্দুক ও একটি কার্তুজ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় দত্তপাড়া তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ বেলায়েত হোসেন বাদী হয়ে থানায় অস্ত্র আইনে তাদের বিরুদ্ধে পৃথক দুইটি মামলা দায়ের করেন।
সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে পুলিশ সুপার আরোও বলেন, আমরা অস্ত্র উদ্ধার অভিযানে নেমেছি।লক্ষ্মীপুরে যেসব অবৈধ অস্ত্র রয়েছে তা উদ্ধার হবে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সকল সংস্থা আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করছে। সাবেক যুবলীগ নেতা নোমান ও সাবেক ছাত্রলীগ নেতা রাকিবের হত্যার ঘটনায় আমরা অনেক তথ্য পেয়েছি,মামলার তদন্ত স্বার্থে অনেক কিছু বলা যাচ্ছে না। মামলার প্রধান আসামি আবুল কাশেম জিহাদীকে গ্রেপ্তারের জন্য কাজ করছি।