Ad Space 100*120
Ad Space 100*120

লক্ষ্মীপুরে স্বামীর সাথে অভিমান করে গলায় ফাঁস দিল স্ত্রী 


প্রকাশের সময় : ৯ মাস আগে
লক্ষ্মীপুরে স্বামীর সাথে অভিমান করে গলায় ফাঁস দিল স্ত্রী 

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি : লক্ষ্মীপুরের চন্দ্রগঞ্জে স্বামীর সাথে অভিমান করে স্ত্রী শারমিন আক্তার (২৫) গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। পুলিশ রোববার (৪জুন) দুপুরে ওই গৃহবধূর মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। এর আগে শনিবার (৩ জুন) রাত ১০ টার দিকে চন্দ্রগঞ্জ বাজারের হাজী তোফায়েল কমপ্লেক্সের তৃতীয় তলার বারান্দায় গলায় ফাঁস দেয় শারমিন। এ ঘটনায় তার স্বামী বাপ্পী চৌধুরীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ। বাপ্পী চন্দ্রগঞ্জ বাজারের ডিশ ও ইন্টারনেট ব্যবসায়ী। তার বাড়ি পাশ্ববর্তী নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার আলেয়াপুর ইউনিয়নের ভববতী গ্রামে। শারমিন একই উপজেলার জয় নারায়ণপুর গ্রামের শাহ আলমের মেয়ে।

তারা চন্দ্রগঞ্জ বাজারের ওই ভবনে ভাড়া বসবাস করতো। শারমিন তার দ্বিতীয় স্ত্রী। ৫—৬ বছর আগে তাদের বিয়ে হয়। তাদের ঘরে এক বছর বয়সী এক কন্যাশিশু রয়েছে।

স্থানীয়রা জানায়, শারমিন তার স্বামী বাপ্পীর কাছে বিউটি পার্লার দেওয়ার জন্য বায়না ধরে। এতে সে রাজি হয়নি। এ নিয়ে দুইজনের মধ্যে ঝগড়া হয়। রাতে বাপ্পী তার স্ত্রী শারমিনকে চড়থাপ্পড় দিয়ে বাসা থেকে বেরিয়ে যায়। পরে শারমিন বাসার বারান্দায় দরজা বন্ধ করে গলায় ফাঁস দেয়। ঘটনাটি বাজারে থাকা উপস্থিত লোকজন বাহির থেকে প্রত্যক্ষ করে। লোকজন তাকে নিষেধ করলেও সে কারো কথা শোনে নি। তাকে বাঁচানোর চেষ্টা করেও সম্ভব হয়নি।

চন্দ্রগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তহিদুল ইসলাম বলেন, শারমিনের মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তার স্বামীকে থানায় নিয়ে আসা হয়। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানান তিনি।