Ad Space 100*120
Ad Space 100*120

লক্ষ্মীপুর জেলা সাহিত্য সংসদ আয়োজিত আবৃত্তি ও সাংস্কৃতিক প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত


প্রকাশের সময় : ৫ মাস আগে
লক্ষ্মীপুর জেলা সাহিত্য সংসদ আয়োজিত আবৃত্তি ও সাংস্কৃতিক প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত

লক্ষ্মীপুর জেলা সাহিত্য সংসদ আয়োজিত আবৃত্তি ও সাংস্কৃতিক প্রশিক্ষণ কর্মশালা আজ ২০ ডিসেম্বর দিন ব্যাপী লক্ষ্মীপুর জেলা পরিষদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। কর্মশালায় প্রশিক্ষণ প্রদান করেন সেঁজুতি ইন্সটিটিউশনস এর প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারপার্সন অ্যাডভোকেট মুরাদ—আল—হাসান চৌধুরী। কর্মশালায় জেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শতাধিক শিক্ষক ও শিক্ষার্থী সহ বিভিন্ন পেশার ব্যক্তিবর্গ অংশগ্রহণ করেন।
কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান সাহিত্য সংসদের সভাপতি ডা. মো: সালাহউদ্দিন শরীফের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন লক্ষ্মীপুর সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মোহাম্মদ মাহাবুবুল করিম। অনুষ্ঠান উদ্বোধন করেন লক্ষ্মীপুর সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর খন্দকার ইউসুফ হোসেন। সাহিত্য সংসদের যুগ্ম সম্পাদক কবি আনিস আহমেদের স ালনায় স্বাগত বক্তব্য দেন সাধারণ সম্পাদক গাজী গিয়াস উদ্দিন। বিশেষ অতিথি ছিলেন বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব কার্তিক রঞ্জন সেনগুপ্ত।
এ পর্বে প্রধান অতিথির বক্তেব্যে প্রফেসর মোহাম্মদ মাহাবুবুল করিম বলেন, লক্ষ্মীপুরে সাহিত্য জগতকে ধরে রাখার গুরু দায়িত্ব পালন করছে সাহিত্য সংসদ। নতুন প্রজন্মের প্রতিভাকে জাতীয় পর্যায়ে নিয়ে যাবার জন্যে আহ্বান জানিয়ে তিনি আরো বলেন, প্রতিভান লালনের সাহিত্য সংসদ সঠিক ভাবে দায়িত্ব পালন করছে।
অনুষ্ঠানের উদ্বোধক প্রফেসর খন্দকার ইউসুফ হোসেন বলেন, সাহিত্য সংসদের আবৃত্তি প্রশিক্ষণের মাধ্যমে শিক্ষার্থী ও তরুণ সমাজের মধ্যে কাঙ্খিত পরিবর্তন আসবে। প্রজন্মকে নিয়ে হতাশা দূর হবে।
সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন লক্ষ্মীপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সার্বিক মোহাম্মদ নূর—এ—আলম। বিশেষ অতিথি ছিলেন সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ ইমরান হোসেন ও জাতীয় মহিলা সংস্থা জেলার চেয়ারম্যান ফরিদা ইয়াসমিন লিকা। এ পর্বে স ালনা করেন সাহিত্য সংসদের সহ—সভাপতি মোশাররফ হোসেন চৌধুরী।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে এডিসি জেনারেল নূর—এ—আলম বলেন, শিল্প সাহিত্য হৃদয়ের ভেতরের সম্পদ। ধর্ম পালন করেও শিল্পী সাহিত্য চর্চা করা যায়। তিনি আ লিকতা পরিহার করে ভাষাকে গ্রহণ যোগ্য করার আহ্বান জানিয়ে বলেন, একটি সুস্থ সমাজ গঠনে সাহিত্য সংসদের এ আবৃত্তি কর্মশালা অনন্য স্মৃতি হয়ে থাকবে।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ইউএনও মোঃ ইমরান হোসেন বলেন, অন্যায় অবিচারের বিরুদ্ধে বিশেষ করে মহান মুক্তিযুদ্ধে শিল্পী সাহিত্যিকরাই প্রেরণা দিয়েছেন। মৌলবাদ ও কুসংস্কারের বিরুদ্ধে অগ্রণী ভূমিকা পালন করার লক্ষ্যে আবৃত্তি ও সাহিত্য চর্চার বিকল্প নেই।
পরিশেষে প্রধান অতিথি ও অতিথিগন প্রশিক্ষণার্থীদের মাঝে সনদ বিতরণ করেন।
অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সাহিত্য সংসদের সিনিয়র সহ—সভাপতি মাহবুবুল বাসার, যুগ্ম সম্পাদক ফখরুল ইসলাম, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ইকবাল হোসেন বকুল, নারী নেত্রী বীণা রহমান, দিঘলী মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জয়নাল আবেদীন, স্বাশিপ জেলা সভাপতি মাহবুবুর রশীদ চৌধুরী, লিয়াকত আলী মাস্টার, নন্দন ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা রাজু আহমেদ, সাহিত্য সংসদের সাংস্কৃতিক সম্পাদক আসাদুল ইসলাম শ্রাবণ, বিশিষ্ট ছড়াকার শাহরিয়ার শাহাদাত, সাহিত্য সংসদের প্রচার সম্পাদক কবি হোসেন আহম্মদ জান, দপ্তর সম্পাদক কবি রুবেল আহম্মেদ, আবৃত্তিকার হোসনেয়ারা কানন প্রমুখ।